,

‘সেবাই প্রথম’ স্লোগানে প্রিমিয়ার ব্যাংকের ১৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

নাগরিক নিউজ: দেশের আধুনিক ব্যাংকিং ধারণাকে সমুন্নত রেখে অভীষ্ট লক্ষ্যে এগিয়ে চলছে দেশের স্বনামধন্য বেসরকারি ব্যাংক দি প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেড।

ডিজিটাল ও সেবাবান্ধব ব্যাংকিংয়ের ১৯ বছরের অভিজ্ঞতায় ঋদ্ধ হয়ে পদার্পণ করেছে বিশ বছরে।

বৃহস্পতিবার ঢাকার বনানীর ইকবাল সেন্টারে ব্যাংকটির প্রধান কার্যালয়ে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এবার তাদের বর্ষপূর্তির দিনটি শুক্রবার হওয়ার একদিন আগে বৃহস্পতিবার ঘটা করে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আয়োজন করে তৃতীয় প্রজন্মের ব্যাংকটি।

১৯৯৯ সালে ১৭ জন কর্মী নিয়ে যাত্রা শুরু করা ব্যাংকটির বর্তমান কর্মকর্তা রয়েছেন এক হাজার ৭১২ এবং সারা বাংলাদেশে ব্যাংকের ১১০টি শাখা রয়েছে।

বৃহস্পতিবার ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রিমিয়ার ব্যাংকের চেয়ারম্যান এইচ বি এম ইকবাল বলেন, দেশের বিভিন্ন ব্যাংকের নানা সমস্যা সংবাদ মাধ্যমে এলেও প্রিমিয়ার ব্যাংকে এসবের বাইরে রয়েছে।

“সবার অবস্থা কিন্তু এক নয়। প্রিমিয়ার ব্যাংকের দ্রুত বৃদ্ধি হচ্ছে, আমরা ভাল আছি।”

সম্মেলনে গত দুই বছরের মধ্যে ব্যাংকের অগ্রগতি তুলে ধরে প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী এম রিয়াজুল করিম জানান, ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরের শেষে ব্যাংকে মোট আমানতের পরিমাণ ১৫ হাজার ৭৫০ কোটি, যা গত বছরের একই সময়ে ছিল ১৩ হাজার ৬৫৮ কোটি।

“আমাদের গ্রোথ এখানে ১৫ দশমিক ৩২ শতাংশ। ব্যাংক থেকে গত বছর যেখানে ১৩ হাজার ১১৪ কোটি টাকার ঋণ বিতরণ হয়েছিল, এবার তা হয়েছে ১৫ হাজার ১০১ কোটি, এখানেও গ্রোথ ১৫ দশমিক ১৫ শতাংশ। ব্যাংকের লাভও আগের বছরের তুলনায় ৪৩ দশমিক ৬০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।”

আগামী বছরে ক্ষুদ্র ও মাঝারি ঋণ এবং এজেন্ট ব্যাংকিং নিয়ে কাজ করার আশাবাদ ব্যক্ত করেন রিয়াজুল করিম।

তিনি বলেন, “ভবিষ্যতে আমাদের অন্তর্ভুক্তিমূলক ব্যাংকিং সেবা ব্যবস্থা গড়ে তোলার পরিকল্পনা রয়েছে। সেলক্ষ্যে আমরা ক্ষুদ্র-মাঝারি ঋণ প্রদান বৃদ্ধি ও এজেন্ট ব্যাংকিং নিয়ে কাজ করব। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে বর্তমানে আমাদের অর্ধশতাধিক এজেন্ট রয়েছে, যা আগামী এক বছরে শতাধিক নতুন এজেন্ট ব্যাংক চালু করার পরিকল্পনা রয়েছে।”

ব্যাংকের উপদেষ্টা মুহাম্মদ আলী বলেন, “দেশের ৬০ শতাংশ মানুষ ব্যাংকিং সেবার বাইরে রয়েছে, আমরা চাই এসব মানুষদের সেবার আওতাভুক্ত করা”

মতামত