,

বাঁশখালীর গণমানুষের সেবক হতে চাই: সংবর্ধনায় এমপি মোসস্তাফিজ

সংবর্ধনায় বক্তব্য রাখছেন এমপি মোসস্তাফিজ

বাঁশখালী উপজেলার ঐতিহ্যবাহী ১২ নং ছনুয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের উদ্যোগে ছনুয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি জিল্লুর করিম শরীফির সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনু্ষ্ঠান শনিবার (২৬ জানুয়ারি) রাতে ছনুয়া হোসাইনীয়া মাদ্রাসা মাঠ প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয়।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ও সংবর্ধিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন,চট্টগ্রাম ১৬ বাঁশখালী থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য আলহাজ মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী ।

প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ছনুয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এম হারুনুর রশিদ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের শ্রম বিষয়ক খোরশেদ আলম, থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক অাব্দুল গফুর, সাংগঠনিক সম্পাদক চেয়ারম্যান মুহিউদ্দীন চৌধুরী খোকা, কালীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এডভোকেট আ.ন.ম শাহাদত আলম, সরল ইউপি চেয়ারম্যান রশিদ আহমদ চৌধুরী, চাম্বল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান, শেখেরখীল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইয়াছিন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ফিরুজ আহমদ, টৈইটং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জাহেদুল আলম জাহেদ, উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি রেহেনা আক্তার কাজেমী,
যুবলীগ নেতা জাহেদ আকবর জেবু, পুইঁছড়ি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মুজিবুর রহমান, যুবলীগ নেতা আবুল কালাম আজাদ,ছাত্রলীগ নেতা আলমগীর কবির চৌধুরী প্রমূখ।

সংবধর্না সভায় নব নির্বাচিত এমপি আলহাজ্ব মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরীর অনুষ্টান স্থলে ঘোড়ার গাড়ি করে নিয়ে যাওয়া হয়।পরবর্তীতে অনুষ্টানের মাঝখানে নব নির্বাচিত এমপিকে ২য় বারের মত সংসদসদস্য হওয়ায় তার হাতে স্বর্ণের নৌকা তুলে দেন ছনুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হারুনের রশিদের ছোট ভাই যুবলীগ নেতা মোঃ আলমগীর।

সংবর্ধনাকালে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আলহাজ মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী বলেন, বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকার যে উন্নয়ন করেছে তার ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে আবারো জননেত্রী শেখ হাসিনার বিকল্প নেই। জননেত্রী শেখ হাসিনার মেধাবী নেতৃত্বে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে গেছে। তেমনি বর্তমান সরকার ক্ষমতায় থাকার সুবাধে বাঁশখালী ১৪ টি ইউনিয়ন ও ১ টি পৌরসভায় দেখার মত উন্নয়ন হয়েছে। আগামীতে আওয়ামী লীগ সরকারের গৃহীত উন্নয়ন কর্মকান্ড শেষ হলে দেশের চেহারা পাল্টে যাবে। ক্ষমতায়নে কাজ করে যাচ্ছেন। শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকাকালে নারীদের মাতৃত্বকালীন ভাতা, বিধবা ভাতা, বয়স্কভাতা চালু করেছেন। নারী এখন সমাজ পরির্বতনে কাজ করে যাচ্ছেন। বলতে গেলে জননেত্রী শেখ হাসিনা নারী সমাজের অগ্রদূূত। বর্তমান সরকার নারীর ক্ষমতায়নে বিভিন্ন প্রদক্ষেপ গ্রহণ করে নারীদের যথাযথ সম্মান করেছে, নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আপনারা আমাকে বিজয়ী করেছেন।

তিনি আরো বলেন, আমি কথায় বিশ্বাসী না আমি কাজে বিশ্বাসী। আমি ওয়াদা দেব না, আমি মন ভোলানো কথাও বলব না। আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন। যেমন ৫ বছরে ১০০০ কোটি টাকার উন্নয়ন করেছি যা উন্নয়ন করেছি আপনাদের সুখ ও শান্তির জন্য করেছি। আমি নিরবে নিভৃতে সাধারণ মানুষের কল্যাণে কাজ করার চেষ্টা করেছি এবং ভবিষ্যতেও এ চেষ্টা অব্যাহত থাকবে। আগামী ৫ বছর লাগবে ২ বছরের মধ্যে বাঁশখালী মডেল একটা উপজেলা হবে।

আওয়ালীগের অন্যতম সংগঠক বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারকে বাঁশখালী থেকে আমাকে নির্বাচিত করে আমাকে উপহার দেওয়ার জন্য আপনারা যে ত্যাগ স্বীকার করেছেন তার জন্য আমি কৃতজ্ঞ।আমি সংবর্ধনা নিতে আসিনি, কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করার জন্য আসছি, আমি আপনাদেরকে কথা দিচ্ছি, আগামিতে বাঁশখালীকে একটি মডেল বাঁশখালী উপহার দিতে চাই। এখানে কেউ কেউ আমার নাম ভাঙ্গিয়ে, আওয়ামীলীগের নাম ভাঙ্গিয়ে চাঁদাবাজি করলে আপনারা সাথে সাথে গণধোলাই দিবেন। এতে আমি দুষ্কৃতিকারীদের সাথে থাকবো না, এদের পক্ষ নেবো না। মাদক, সন্ত্রাসমুক্ত, জঙ্গিমুক্ত বাঁশখালী গড়ার প্রত্যয়ে আপসহীনভাবে কাজ করে যাবো ইনশাআল্লাহ।’

এ সময় ছনুয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ,যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও মহিলা আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার হাজার হাজার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।
সূত্র: বাঁশখালী টাইমস

মতামত