জুলাই থেকেই চালু হবে ই-পাসপোর্ট

জুলাই থেকেই চালু হবে ই-পাসপোর্ট

আগামী জুলাই মাসেই বাংলাদেশে চালু হচ্ছে ই-পাসপোর্ট। জার্মানির একটি কোম্পানির সঙ্গে এরইমধ্যে এ বিষয়ে একটি সমঝোতা স্মারক সই হয়েছে। এই পরিষেবা চালু হলে বাংলাদেশ ঢুকবে নতুন যুগে। অত্যাধুনিক প্রযুক্তির এ পাসপোর্টের একটি ‘চিপ’ সহজ করে দেবে বিশ্বভ্রমণ। জানা যায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ই-পাসপোর্টের নমুনা কপি (Specimen copy) এরইমধ্যে অনুমোদন দিয়েছেন। যেটি বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যাওয়ার পথে প্রধানমন্ত্রীর আরেকটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ। বর্তমানে ই-পাসপোর্ট বা ইলেকট্রনিক পাসপোর্ট চালু রয়েছে বিশ্বের ১১৮টি দেশে। ১১৯ নম্বর দেশ হিসেবে ই-পাসপোর্টের যুগে ঢুকে পড়া এগিয়ে রাখবে বাংলাদেশকে। নিরাপত্তা চিহ্ন হিসেবে ই-পাসপোর্টে থাকবে চোখের মণির ছবি ও আঙুলের ছাপ। আর এর পাতায় থাকা চিপসে সংরক্ষিত থাকবে পাসপোর্টধারীর সব তথ্য। ফলে কঠিন হবে পরিচয় গোপন করা। এখন দেশের প্রায় দুই কোটি মানুষ মেশিন রিডেবল পাসপোর্টের (এমআরপি) মালিক। প্রতিদিন গড়ে ২০ হাজার মানুষ পাসপোর্টের জন্য আবেদন করছে। সময়মতো পাসপোর্ট দিতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছে পাসপোর্ট অফিসগুলো। ২০১০ সালে মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট (এমআরপি) চালু হওয়ার সময় যেসব যন্ত্রপাতি ব্যবহার হচ্ছিল সেগুলো দিয়েই এখনো কাজ চলছে। এসব যন্ত্রের অধিকাংশ বিকল। এক যন্ত্রের পার্টস অন্য যন্ত্রে বসিয়ে জোড়াতালি দিয়ে চালানো হচ্ছে কাজ। সূত্র জানায়, ২০১৬ সালে এমআরপির পাশাপাশি ই-পাসপোর্ট চালুর সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। একই সময় পাসপোর্টের মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী যে দিন থেকে ই-পাসপোর্ট চালু হবে সেদিন থেকে এমআরপি পাসপোর্ট রিনিউ করতে গেলে ই-পাসপোর্ট করতে হবে। যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপ, কানাডাসহ ১১৮টি দেশে ই-পাসপোর্ট চালু আছে। বর্তমানে সাধারণ ও জরুরি পাসপোর্ট করতে যথাক্রমে তিন হাজার ও ছয় হাজার টাকা ফি দিতে হয়। মেয়াদ পাঁচ বছর। প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ অনুযায়ী ই-পাসপোর্টের কার্যক্রম দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলছে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রসচিব (সুরক্ষা সেবা বিভাগ) ফরিদ উদ্দিন আহম্মদ চৌধুরী। জানা যায়, জার্মানির প্রযুক্তি নিয়ে জিটুজির মাধ্যমে বাংলাদেশে ই-পাসপোর্ট করা হবে। এরই মধ্যে একটি চুক্তিও সই...
রোহিঙ্গাদের দেখতে ঢাকায় আসছেন সুইজারল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট

রোহিঙ্গাদের দেখতে ঢাকায় আসছেন সুইজারল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট

মিয়ানমার থেকে বিতাড়িত রোহিঙ্গাদের দেখতে চারদিনের সফরে আজ রবিবার ঢাকায় আসছেন সুইজারল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট অ্যালেই বারসেট। সফরকালে সুইস প্রেসিডেন্ট কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে যাবেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তাকে স্বাগত জানাবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। এছাড়া বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি সুইস প্রেসিডেন্ট অ্যালেই বারসেটের সম্মানে নৈশভোজের আয়োজন করেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন তিনি। বৈঠক শেষে বেশ কয়েকটি চুক্তি স্বাক্ষর হতে পারে। প্রসঙ্গত, ১৯৭২ সালের ১৩ মার্চ দু’দেশের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপিত হয়েছিল। সেদিনই সুইজারল্যান্ড বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেয়। বাংলাদেশ ও সুইজারল্যান্ডের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্কের ৪৫ বছর পূর্তি হয়েছে ২০১৭ সালে। সুইজারল্যান্ডের রীতি অনুসারে গত ১ জানুয়ারি এক বছরের মেয়াদে প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব গ্রহণ করেন অ্যালেই বারসেট। ইতিপূর্বে সুইজারল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড ইকনোমিক ফোরামের (ডব্লিউইএফ) ৪৭তম বার্ষিক সম্মেলনে যোগ দিতে ১৬ জানুয়ারি রাতে ৫ দিনের সরকারি সফরে সুইজারল্যান্ডে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ডব্লিউইএফ নির্বাহী চেয়ারম্যান প্রফেসর ক্লাউস সোয়াবের আমন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রী প্রথম বাংলাদেশী নির্বাচিত নেতা হিসেবে এ ফোরামে যোগ দিয়েছিলেন। সুইজারল্যান্ডের পূর্বাঞ্চলীয় আল্পস অঞ্চলে গ্রাউবান্ডেনে পার্বত্য রিসোর্ট ডাভোসে ১৭ থেকে ২০ জানুয়ারি ৪ দিনব্যাপী এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সুইস বা সুইজারল্যান্ড (জার্মান: die Schweiz ডি শ্বাইৎস, ফরাসি: la Suisse লা স্যুইস্, ইতালীয়: Svizzera স্বিৎস্স্রা, রোমান: Svizra স্বিৎস্রা) ইউরোপ মহাদেশে অবস্থিত একটি রাষ্ট্র। তবে এটি ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্য নয়। এর মুদ্রার নাম সুইস ফ্রাংক এবং বাৎসরিক স্থুল দেশজ উৎপাদের পরিমাণ ৫১২.১ বিলিয়ন সুইস ফ্রাংক (২০০৭ খ্রিস্টাব্দ)। এটি পৃথিবীর ধনী রাষ্ট্রসমূহের অন্যতম। ২০০৬ খ্রিস্টাব্দে জনসংখ্যা ছিল প্রায় পৌণে এক কোটি। এদেশে মানুষের মাথাপিছু বাৎসরিক আয় ৬৭,৮২৩ সুইস ফ্রাংক (২০০৭ খ্রিস্টাব্দ)। বের্ন শহরটি সুইজারল্যান্ডের রাজধানী। অন্যতম বিখ্যাত অন্য দুটি শহর হলো জুরিখ এবং জেনিভা। জুরিখের দিকের লোকেরা জার্মান এবং জেনিভার দিকের লোকেরা ফরাসি ভাষায় কথা বলে। আল্পস পর্বতমালা ও প্রশস্ত হ্রদ সুইজারল্যান্ডকে অনন্য...
নির্বাচনে যেতে খালেদা জিয়া ছয় শর্তে রাজি

নির্বাচনে যেতে খালেদা জিয়া ছয় শর্তে রাজি

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে ছয়টি শর্ত দিয়েছেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। আজ শনিবার দুপুরে রাজধানীর হোটেল লা মেরিডিয়ানে বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির প্রথম সভায় খালেদা জিয়া একাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে শর্তগুলো তুলে ধরেন। বিএনপি চেয়ারপারসন বলেছেন, মানুষ পরিবর্তন চায়। এই পরিবর্তন হতে হবে নির্বাচনের মাধ্যমে। নির্বাচনে অংশ নিতে বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া শর্তগুলো হলো: * ভোট হতে হবে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে * জনগণকে ভোটকেন্দ্রে আসার মতো পরিবেশ তৈরি করতে হবে * ভোটের আগে সংসদ ভেঙে দিতে হবে * নির্বাচন কমিশনকে নিরপেক্ষতা বজায় রেখে কাজ করতে হবে * ভোটের সময় সেনাবাহিনী মোতায়েন করতে হবে, সেনাবাহিনী মোবাইল ফোর্স হিসেবে কাজ করবে * যন্ত্রে ভোটের জন্য ইভিএম/ডিভিএম ব্যবহার করা যাবে না সভার উদ্বোধনী বক্তব্যে খালেদা জিয়া বলেন, ‘আমি যেখানেই থাকি না কেন, আপনাদের সঙ্গে আছি। আমাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে লাভ নেই। দলের নেতা ও এ দেশের মানুষের সঙ্গে আছি।’ তিনি দলের নেতাদের শান্তিপূর্ণ প্রতিরোধ-প্রতিবাদ গড়ে তোলার আহ্বান জানান। ঐক্যবদ্ধ থাকতে নেতা–কর্মীদের পরামর্শ দেন। সভায় ছয় শর্ত দেওয়ার পর খালেদা জিয়া নির্বাহী কমিটির সদস্যদের কাছে জানতে চান, তাঁরা এর সঙ্গে একমত কি না। এ সময় নির্বাহী কমিটির সদস্যরা উচ্চ স্বরে বলেন, একমত। সভায় বিএনপি চেয়ারপারসন জাতীয় ঐক্য গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়ে বলেন, দেশের প্রয়োজনে এখন প্রয়োজন জাতীয় ঐক্য। তিনি দলের নেতাদের বলেন, ‘একবার ক্ষমা করেছি। কিন্তু ক্ষমা বারবার করা যায় না। যাঁরা দলের প্রতি অনুগত থাকবেন, তাঁদের মূল্যায়ন করা হবে। যাঁরা থাকবেন না, তাঁদের আর ক্ষমা করা হবে না।’...
লিড বাড়ছে শ্রীলঙ্কার, হতাশা বাংলাদেশের

লিড বাড়ছে শ্রীলঙ্কার, হতাশা বাংলাদেশের

তৃতীয় দিন শেষে বাংলাদেশের চেয়ে ৯ রানে পিছিয়ে ছিল শ্রীলঙ্কা। চতুর্থ দিনের সকালে এই রান টপকে প্রথম ইনিংসে লিড নিয়েছে সফরকারীরা। আগের দিনের দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান রোশেন সিলভা ও দিনেশ চান্ডিমাল শ্রীলঙ্কার রান বাড়িয়ে নিতে নেমেছেন ব্যাটিংয়ে।  তৃতীয় দিন শেষে সফরকারীদের স্কোর ছিল ৩ উইকেটে ৫০৪ রান।  প্রথম ইনিংসে অলআউট হওয়ার আগে বাংলাদেশ করেছিল ৫১৩ রান। মুমিনুল হকের দুর্দান্ত সেঞ্চুরিতে প্রথম ইনিংসে বড় স্কোর করেছিল বাংলাদেশ। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৪ উইকেটে ৫৬২। রোশেন ১০৯ রান করে আউট...
ভাষার মাস শুরু

ভাষার মাস শুরু

আমার ভাই এর রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি আমি কি ভুলিতে পারি’ণ্ডরক্তে রাঙানো সেই ফেব্রুয়ারি মাস– ভাষা আন্দোলনের মাস শুরু আজ থেকে। এ দিন থেকে ধ্বনিত হবে সেই অমর সঙ্গীতের অমিয় বাণী। বাঙালি জাতি পুরো মাস জুড়ে ভালোবাসা জানাবে ভাষার জন্য যারা প্রাণ দিয়েছিলেন তাদের। ভাষার অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে ফেব্রুয়ারি ছিল ঔপনিবেশিক প্রভুত্ব ও শাসন–শোষণের বিরুদ্ধে বাঙালির প্রথম প্রতিরোধ এবং জাতীয় চেতনার প্রথম উন্মেষ। ১৯৫২ সালের একুশে ফেব্রুয়ারি রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবিতে দুর্বার আন্দোলনে সালাম, জব্বার, শফিক, বরকত ও রফিকের রক্তের বিনিময়ে বাঙালি জাতি পায় মাতৃভাষার মর্যাদা এবং আর্থ–সামাজিক ও রাজনৈতিক প্রেরণা। তারই পথ ধরে শুরু হয় বাঙালির স্বাধিকার আন্দোলন এবং একাত্তরে নয় মাস পাকিস্তানি বাহিনীর বিরুদ্ধে সশস্ত্র যুদ্ধের মধ্য দিয়ে অর্জিত হয় স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ। খবর বাসসের। বস্তুত ফেব্রুয়ারি মাস একদিকে শোকাবহ হলেও অন্যদিকে আছে এর গৌরবোজ্জ্বল অধ্যায়। কারণ পৃথিবীর একমাত্র জাতি বাঙালি ভাষার জন্য এ মাসে জীবন দিয়েছিল। আর তাই দিবসটি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবেও স্বীকৃত। একুশের মাসের সবচেয়ে বড় কর্মযজ্ঞ মাসব্যাপী বইমেলা শুরু হচ্ছে আজ থেকে। বাংলা একাডেমিতে বিকেল তিনটায় এই মেলার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন এ মাসে আয়োজন করেছে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের। ‘দেশহারা মানুষের সংগ্রামে কবিতা’ শেহ্মাগানে আজ থেকে শুরু হচ্ছে দুই দিনের কবিতা উৎসব। প্রতি বছরের মত এবারও উৎসব হবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার প্রাঙ্গণে। সকালে উৎসবের উদ্বোধন করবেন কবি আসাদ...
আজ থেকে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু

আজ থেকে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু

আজ থেকে দেশব্যাপী একযোগে শুরু হলো মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষা। প্রথম দিন বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে ১টা পর্যন্ত এসএসসিতে বাংলা (আবশ্যিক) প্রথমপত্র, সহজ বাংলা প্রথমপত্র এবং বাংলা ভাষা ও বাংলাদেশের সংষ্কৃতি বিষয়ের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। দাখিলে কুরআন মাজিদ ও তাজবিদ বিষয়ের পরীক্ষা চলছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষার কক্ষে প্রবেশ করতে হয়েছে। এবারের এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় মোট পরীক্ষার্থী ২০ লাখ ৩১ হাজার ৮৮৯ জন। এর মধ্যে ১০ লাখ ২৩ হাজার ২১২ জন ছাত্র ও ১০ লাখ ৮ হাজার ৬৮৭ জন ছাত্রী রয়েছে। ৩ হাজার ৪১২টি কেন্দ্রে এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ২০১৭ সালে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় মোট ১৭ লাখ ৮৬ হাজার ৬১৩ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিয়েছিল। গত বছরের চেয়ে এবার পরীক্ষার্থী বেড়েছে ২ লাখ ৪৫ হাজার ২৮৬ জন। চলতি বছর এসএসসিতে মোট পরীক্ষার্থী ১৬ লাখ ২৭ হাজার ৩৭৮ জন, মাদ্রাসা বোর্ডের অধীন দাখিল পরীক্ষায় দুই লাখ ৮৯ হাজার ৭৫২ জন এবং কারিগরিতে এক লাখ ১৪ হাজার ৭৬৯ জন পরীক্ষার্থী রয়েছে। এ ছাড়া বিদেশে অবস্থিত মোট ৮টি কেন্দ্রে ৪৫৮ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করছে। আজ ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। তত্ত্বীয় পরীক্ষা ১ ফেব্রুয়ারি শুরু হয়ে ২৫ ফেব্রুয়ারি এবং ব্যবহারিক পরীক্ষা ২৬ ফেব্রুয়ারি শুরু হয়ে ৪ মার্চ শেষ হবে। এবারের এসএসসি পরীক্ষায় বাংলা ২য় পত্র এবং ইংরেজি ১ম ও ২য় পত্র ছাড়া সব বিষয়ে সৃজনশীল প্রশ্নে পরীক্ষা নেওয়া...
সীতাকুণ্ডে সড়ক দুর্ঘটনায় জামেয়ার মাওলানা বখতেয়ার গুরিতর আহত

সীতাকুণ্ডে সড়ক দুর্ঘটনায় জামেয়ার মাওলানা বখতেয়ার গুরিতর আহত

চট্টগ্রাম: নগরীর ষোলশহর জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়া মাদ্রাসার মুফতি মাওলানা বখতিয়ার উদ্দিন সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন। তিনি নগরীর বেসরকারি একটি ক্লিনিকে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন আছেন। রোববার ভোরে সীতাকুণ্ড উপজেলার কুমিরা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। ধারণা  করা হচ্ছে বখতিয়ার উদ্দিনকে বহনকারী মাইক্রোবাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সামনে কোনো গাড়িতে ধাক্কা দিলে এ ঘটনা ঘটে। কুমিরা হাউওয়ে পুলিশের ওসি মো.মাসুদ আলম বলেন, রোববার ফজর নামাজের পরপর ঘটনা ঘটেছে। ফলে কিভাবে দুর্ঘটনা ঘটেছে তা জানা সম্ভব হয়নি। তবে গাড়ির সামনে থাকা একজন আহত হয়েছেন বলে শুনেছি। মাথায় আঘাত পাওয়ায় নগরীর সিএসটিসি হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা...
পুলিশের নতুন আইজি জাবেদ পাটোয়ারী

পুলিশের নতুন আইজি জাবেদ পাটোয়ারী

পুলিশের নতুন আইজি হলেন জাবেদ পাটোয়ারী। প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনের পর তার নিয়োগ নথি এখন রাষ্ট্রপতির স্বাক্ষরের অপেক্ষায়। তিনি ১লা ফেব্রুয়ারি থেকে নতুন আইজিপি হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করবেন। জাবেদ পাটোয়ারী চাঁদপুর সদর উপজেলার শাহ্ মাহমুদপুর ইউনিয়নের কর্দি পাটোয়ারী বাড়ীর সন্তান। বিসিএস ৮৪ ব্যাচের জাবেদ পাটোয়ারী। তিনি এই ব্যাচের মেধা তালিকায় প্রথম। যদিও অনেক আগেই তার আইজিপি হওয়ার কথা ছিল কিন্তু ভুয়া কাল্পনিক রাজনৈতিক সম্পর্কের গুজবে পুলিশে সর্বোচ্চ মেধা, দক্ষতা, যোগ্যতা থাকা সত্বেও তিনি আইজিপি হতে পারেননি। পুলিশ প্রশাসনে স্বচ্ছ ইমেজের কর্মকর্তা হিসেবে পরিচিতি রয়েছে তার। ২০১৩ সালে সচিব পদমর্যাদায় গ্রেড-১ পদে পদোন্নাতি পেয়ে এতদিন পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) অতিরিক্ত মহা-পরিদর্শক কর্মরত ছিলেন। তিনি আইজিপি হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন ২০২০ সালের এপ্রিল...
জার্মানির মুসলিমবিদ্বেষী ওয়াগনারের ইসলাম গ্রহণ

জার্মানির মুসলিমবিদ্বেষী ওয়াগনারের ইসলাম গ্রহণ

জার্মানির কট্টর মুসলিম বিদ্বেষী দল হলো অল্টারনেটিভ ফার ডয়েচল্যান্ড পার্টি তথা এএফডি। এই দলটি সর্বশেষ নির্বাচনে তৃতীয় স্থান অর্জন করেছে। সবাই জানেন যে ২০১৪ সালে যখন ইউরোপের সব দেশ মুসলিম শরণার্থীদের আশ্রয় দিতে অস্বীকার করেছিল, তখন তাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন অ্যাংগেলা মার্কেল। তার এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে কট্টর প্রচারণা চালায় এএফডি। বলা যায় জার্মানিতে মুসলিম বিরোধী ফেনোমেনা তৈরি করে ফেলে দলটি। আর তাদের উত্থানের কারণে যে জটিলতার সৃষ্টি হয়েছে তাতে করে গত চার মাসেও মের্কেল জোট সরকার গঠন করতে পারেনি। এরমধ্যেই আজ এমন একটা খবর আসছে যা আমাদের সব মুসলমানকে আল্লাহর দরবারে সেজদা দিতে বাধ্য করবে। খবরটি হলো এএফডির কট্টর মুসলিম বিদ্বেষী আর্থার ওয়াগনার নিজেই ইসলাম গ্রহণ করেছেন। আল্লাহু আকবার। যেই ব্যক্তি ছিলেন তাকেই আল্লাহ মুসলিম হিসেবে কবুল করেছেন। আলহামদুলিল্লাহ, আর্থার এখন আমাদের মুসলিম ভাই। আর্থার পূর্ব জার্মানির ব্রান্ডেনবার্গ রাজ্য এএফডি পার্টির প্রভাবশালী নেতা ছিলেন। তিনি ইসলাম গ্রহণ করে গত ১১ জানুযারি তিনি পার্টি থেকে পদত্যাগ করেন বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বার্লিনভিত্তিক দৈনিক ডার টাগেশপিগেল। মাঝরাতে ঘুম ভাঙার পর এই খুশির খবরটি লিখলাম এ নিয়তে যে হে মুসলিম ভাই ও বোনেরা আসুন আমরা সবই আল্লাহর ওপর ভরসা করি। তিনি সবচেয়ে বড় রণনীতি ও রণকৌশলের মালিক। তিনি যদি চান তাহলে চরম ইসলাম বিদ্বেষীকেও মুসলিমে পরিণত করে দিতে পারেন। তিনি আমাদের অভাবনীয় সাফল্য দিতে পারেন। কাজেই মহান ইসলামের ভালোবাসা-দরদ-সহমর্মীতার কথাগুলো ছড়িয়ে দিন। ঘৃণার পরিবর্তে ভ্রাতৃত্বের কথা বলুন। হিন্দু-বৌদ্ধ-ইহুদি-খ্রিস্টান-নাস্তিকরা অমুসলিম হলেও আদম-হাওয়ার (আ.) সন্তান হিসেবে তারা আমাদের খান্দানি ভাই। তাদের হেদায়েতের জন্য দোয়া করুন, তাদের সাথে উত্তম কথা বলুন, তাদের ব্যথার দোসর হোন, তাদের রূহকে জাগিয়ে তুলুন। ইনশাআল্লাহ, আল্লাহর জমিনে আল্লাহর দ্বীন কায়েম হবে। আমাদের কাজ হলো ইসলামের ইনসাফ ও ইহসানের বার্তাটি তুলে ধরা। শোকরিয়া,...
ক্ষমতায় যেতে সুশীলরা চাতকের মতো অপেক্ষায় থাকেন: শেখ হাসিনা

ক্ষমতায় যেতে সুশীলরা চাতকের মতো অপেক্ষায় থাকেন: শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সুশীলরা অবৈধ ক্ষমতা পেতে অপেক্ষায় থাকেন সবসময়। বুধবার বিকালে জাতীয় সংসদের অধিবেশনে তিনি এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, অবৈধ ক্ষমতা পেতে চাতক পাখির মতো অপেক্ষায় থাকেন সুশীলরা। তিনি আরো বলেন, ভোটের রাজনীতিতে অচল যারা, তারাই ক্ষমতায় যেতে বাঁকা পথ খোঁজে। অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য ফখরুল ইমামের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, গাড়ি একজনই চালায়, তবে সঠিকভাবে চালাতে হবে। নৌকা গন্তব্যে পৌঁছানোর জন্য একজন মাঝি লাগে। সেই মাঝি যদি সঠিকভাবে চালিয়ে নিয়ে যেতে চায় বা পারে তাহলে গন্তব্যস্থলে পৌঁছাতে পারে। আর যদি সঠিকভাবে না চালাতে পারে তাহলে কিন্তু মাঝখানে যেকোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। খুব স্বাভাবিকভাবেই একটি দেশ পরিচালনা তো আর কেউ এককভাবে করতে পারে না। তবে হ্যাঁ, একজনকে তো উদ্যোগ নিয়ে, ভালো-মন্দ সবকিছুর দায়িত্ব নিয়েই চলতে হয়। আমি সব সময় চেষ্টা করি সবাইকে নিয়েই চলতে, সবাইকে নিয়েই চলবো। তবে এখানে একটা কথা আছে, যদি তোর ডাক শুনে কেউ না আসে তবে একলা চলরে। তিনি বলেন, এই দেশটা আমাদের, দেশের সমষ্টিক অর্থনৈতিক উন্নয়নের ছোঁয়া যেন প্রতিটি মানুষের কাছে পৌঁছায়। তৃণমূল মানুষের কাছে পৌঁছাক সেটাই আমরা চাই। সেই লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। আজকের এই অর্জন সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টার ফসল। আমরা সবাই মিলে কাজ করেছি বলে সম্ভব হয়েছে। পূর্বপশ্চিম সংসদে শেখ হাসিনা বললেন>> ‘যদি তোর ডাক শুনে কেউ না আসে, তবে একলা চলো রে’……………. প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি সবসময় চেষ্টা করি সবাইকে নিয়ে একসঙ্গে চলতে। তবে এখানে কথা আছে, যদি তোর ডাক শুনে কেউ না আসে, তবে একলা চলো রে। কবি একবার বলেন নাই। বার বার বলেছেন। বুধবার বিকেলে জাতীয় সংসদে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য ফখরুল ইমামের এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি সবাইকে...