,

ব্রেকিং

দেশের প্রথম ডিজিটাল স্কুল হতে যাচ্ছে বাঁশখালীর নাটমুড়া স্কুল!

আবু ওবাইদা আরাফাত: বাংলাদেশের প্রথম ডিজিটাল স্কুল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছে দক্ষিণ চট্টগ্রামের স্বনামধন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বাঁশখালীর নাটমুড়া পুকুরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়।

এ লক্ষ্যে গতকাল ২৮ জুন রাজধানী ঢাকায় শিক্ষাবিষয়ক ডিজিটাল কন্টেন্ট প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ‘টিউটরসইনক’ এর সাথে এক চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হয়।
এতে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে সই করেন নাটমুড়া পুকুরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও শিল্পোদ্যোক্তা রাহবার আলম আনওয়ার এবং ‘টিউটরসইনক’র চেয়ার‍ম্যান সৈয়দ নুর আলম।

চুক্তির আওতায় প্রাথমিকভাবে উক্ত স্কুলের অষ্টম ও নবম শ্রেণির প্রায় ৬০০ জন শিক্ষার্থী মাল্টিমিডিয়া ট্যাবের মাধ্যমে পাঠগ্রহণের সুবিধা পাবে। এতে সিলেবাস উপযোগী কাস্টমাইজ ডিজিটাল কন্টেন্ট, ভার্চুয়াল ক্লাস, অডিও এবং টেক্সট ভার্শনসহ বহুবিধ শিক্ষাসহায়ক কন্টেন্ট যুক্ত থাকবে। ফলে শিক্ষার্থীরা খুব সহজেই সিলেবাসের পড়া আত্মস্থ এবং পরীক্ষায় ভালো ফলাফল করবেন বলে আশাবাদ করেন সংশ্লিষ্টরা। আগামী আগস্টে এই প্রযুক্তি দিয়ে পাঠদান হবে বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, শুরুর দিকে গণিত এবং ইংরেজি এই দুই বিষয়ের উপর এই সুবিধা চালু হবে। একটা ট্যাবের সাথে হেডফোনের মাধ্যমে ৩ জন পাঠগ্রহণ করতে পারবে। ডিজিটাল সুবিধার জন্য প্রতিজন শিক্ষার্থী হতে মাসিক ৫০ টাকা ফি ধার্য করা হয়েছে।

এ প্রযুক্তির উপর প্রশিক্ষণ নিতে সংশ্লিষ্ট শিক্ষকগণ শিগগির ঢাকা যাবেন বলে জানান স্কুল কর্তৃপক্ষ।

এ প্রসঙ্গে বাঁশখালী টাইমসের সাথে আলাপকালে নাটমুড়া পুকুরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি রাহবার আলম আনওয়ার বলেন- ‘এই স্কুল ফলাফলের দিক দিয়ে বাঁশখালীতে প্রথম। আমরা চাই সব ভালো উদ্যোগে পথপ্রদর্শক হিসেবে থাকতে। আমাদের স্কুল তথা বাঁশখালীকে ইতিবাচক হিসেবে গড়ে তুলতেই এই উদ্যোগ। বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা ও ডিজিটালাইজেশন পরিকল্পনার সাথে সামঞ্জস্য এই প্রযুক্তি নিয়ে আমরা কাজ শুরু করলে এটা মডেল স্কুল হিসেবে দেশে পরিচিতি পাবে।’

মতামত