,

৫ স্কুলের সুবিধাবঞ্চিত শিক্ষার্থীর মাঝে ব্রাদার বাহারের ছাতা বিতরণ

ব্রাদার বাহার, একটি নাম, একটি সংগঠন। মানবতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। প্রকৃত নাম আহমদ রশিদ বাহাদুর হলেও সমাজসেবা অঙ্গনে এবং ইন্টারনেট জগতে তিনি ব্রাদার বাহার নামে পরিচিত। সারা বাংলাদেশে যার মানবসেবার হাত প্রসারিত। ব্রাদার বাহার একজন লেখকও বটে। তার লেখা ‘ঝরে পড়া মেধা খোঁজে কলম ধরিয়ে দিন” বিদগ্ধজনের কাছে প্রশংসিত হয়েছে। তিনি বিভিন্ন খাতে সমাজসেবা করলেও শিক্ষাখাতে কাজ করতে বেশী স্বাচ্ছন্দবোধ করেন। ব্রাদার বাহারের একটি জনপ্রিয় প্রজেক্ট হচ্ছে, ‘এতিম ও প্রতিবন্ধী (অসচ্ছল) পরিবারের শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষাসামগ্রী বিতরণ কর্মসূচি’। এ প্রজেক্টে তিনি বিভিন্ন সময় দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের স্কুল ও মাদ্রাসা পর্যায়ের চতুর্থ শ্রেণি থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষাসামগ্রী বিতরণ করে আসছেন। ব্রাদার বাহার মাত্র দুদিন আগে সুদূর কুড়িগ্রামের বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করে এসেছেন। গতকাল ২ আগষ্ট চট্টগ্রাম শহরের পাঁচটি স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের মাঝে বর্ষাকালীন ছাতা বিতরণ করেন। মজার বিষয় হচ্ছে ঐসব স্কুল হচ্ছে সুবিধাবঞ্চিতদের স্কুল। বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন স্কুলগুলো পরিচালনা করেন। সেসব স্কুল হচ্ছে আশার আলো ফাউন্ডেশন পরিচালিত ‘সোহা স্কুল’। এই সংস্থা চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন ও পোস্তার পাড় এলাকায় সুবিধাবঞ্চিত ছেলেমেয়েদের পড়ালেখা করায়।
সমাজসেবামূলক সংগঠন ‘বৃত্ত’। তাদের পরিচালিত স্কুল বর্ণমালা। দেবপাহাড় বস্তিতে তাদের স্কুল।
প্রচেষ্টা ফাউন্ডেশন হালিশহর বড়পুল এলাকায় পরিচালনা করে তাদের ‘প্রচেষ্টা’ স্কুল।
সমাজসেবামূলক সংগঠন ‘স্বপ্নের ঠিকানা’ টাইগার পাস রেলওয়ে কলোনীতে পরিচালনা করে ‘স্বপ্নের পাঠশালা’ নামক স্কুল।
‘মায়াফুল’ নামক সংগঠন ‘মায়াফুল বিদ্যাপীঠ’ নামের স্কুল পরিচালনা করেন। তাদের পরিচালিত স্কুল দক্ষিণ কাট্টলী (সাগর পাড়), পাহাড়তলী।

গতকাল শুক্রবার সকালে দুটি ও বিকালে তিনটি মোট পাঁচটি স্কুলে ছাতা বিতরণ করা হয়। প্রত্যেকটি স্কুলে ছাত্রছাত্রীদের জন্য ১০টি ও সংগঠনের জন্য ১টি মোট এগারোটি ছাতা দেয়া হয়। এভাবে গতকাল ৫৫ টি ছাতা বিতরণ করা হয়। এর আগে গত সপ্তাহে সাতকানিয়া বন্যাদূর্গত এলাকায় ও রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ১২০ টি ছাতা বিতরণ করেন ব্রাদার বাহার।
গতকাল বিতরণ কাজে ব্রাদার বাহারকে সহযোগিতা করেন তার ছেলে আজগর আলীম মুজাহিদ। ছাতা বিতরণের সময় যার যার সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং স্থানীয় সচেতন নাগরিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। ব্রাদার বাহার স্বপ্ন দেখেন শতভাগ সুশিক্ষিত একটি দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

মতামত