,

ভেজাল, মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্য বিক্রয় ইসলাম অনুমোদন করে না- মেয়র

আসন্ন রমজান মাসে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখতে আজ সন্ধ্যায় সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন চট্টগ্রামের সকল বাজার কমিটির সাথে মত বিনিময়ে মিলিত হয়েছেন। মত বিনিময় সভায় মেয়র সকল ব্যবসায়ীদেরকে হালাল ভাবে ব্যবসা করার আহবান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ভেজাল নিম্নমান বা মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্য বিক্রয় অনৈতিকতার পরিচায়ক। পবিত্র সিয়ামের মাস রমজানে ভেজাল, মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্য বিক্রয় করে পয়সা উপার্জন করলে তা কখনো হালাল হয় না। এটা ইসলাম অনুমোদন করে না। পৃথিবীর অন্যান্য দেশে রমজান বা অন্য ধর্মীয় উৎসবে ব্যবসায়ীরা সকল পণ্যের দাম কমিয়ে দেন। আর আমাদের দেশে ঘটে তার উল্টো কর্মকান্ড। এদেশে রমজান মাসে ব্যবসায়ীরা সকল ধরণের অনিয়ম, দুর্নীতির আশ্রয় নিয়ে ব্যবসা করে।

তিনি ব্যবসায়ীদেরকে রমজান মাসে স্ব স্ব বাজার তদারকি করে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ, ভেজাল,মানহীন পণ্য বিক্রয় বন্ধে কার্যক্রম পরিচালনা করার আহবান জানান।

বক্তব্যে মেয়র আরো বলেন, ব্যবসায়ীদেরকে দোকানের সামনে মূল্য তালিকা টাঙানোর নির্দেশনা দেন। সভায় বাজার ব্যবসায়ীরা রমজান মাসে মোবাইল কোর্টের নানামুখী হয়রানি বন্ধে মেয়রের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। খুচরা ব্যবসায়ীরা মেয়রকে অভিযোগ করেন, পাইকার থেকে ক্রয়কৃত পণ্যদ্রব্যে অনেক সময় ওজনে গরমিল থাকে।কিন্তু প্রায় সময় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে পাইকারি পণ্যে বস্তা প্রতি নেট ওজনের চেয়ে কম ওজনের অভিযোগে জরিমানা করা হয় খুচরা বিক্রেতাদেরকে।

ব্যবসায়ীরা ভ্রাম্যমান আদালতের এ ধরনের হয়রানি বন্ধে মেয়রের সহযোগিতা কামনা করেন।
সভায় চসিক দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ কমিটির সভাপতি কাউন্সিলর এরশাদ উল্লাহ, কাউন্সিলর গিয়াস উদ্দিন, কাউন্সিলর আবুল হাশেম, সংরক্ষিত কাউন্সিলর আবিদা আজাদ, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার আবদুর রউফ, চট্টগ্রাম মহানগর বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আবদুর রাজ্জাকসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

মতামত