,

বাংলাদেশের ইয়ুথ ডেলিগেশন এম্বাসেডর হিসেবে ভারত যাচ্ছে শিল্পী বৈশাখী নাথ

অষ্টম বারের মতো ভারত সরকারের আমন্ত্রণে এবারও দেশটিতে যাচ্ছে ১০০তরুণ তরুনী। “ইয়ুথ ডেলিগেশন টু ইন্ডিয়া -২০১৯” শীর্ষক এ আয়োজনে দেশের বিভিন্ন সরকারি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের ১০০মেধাবী ও প্রতিভাবান তরুণ তরুণী নিয়ে দলটি আগামী ২৭মার্চ নয়া দিল্লির উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়বে। সফর শেষে ৪এপ্রিল তারা ঢাকায় ফিরবে। এবারের আয়োজনে নিজের দক্ষতা ও প্রতিভার প্রমাণ দেখিয়ে এই ট্রিপে যায়গা করে নিয়েছেন চট্টগ্রাম প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি অনুষদের শিক্ষার্থী, টিভি ও বেতার শিল্পী বৈশাখী নাথ।বৈশাখী চট্টগ্রামের সাংস্কৃতিক অংগনের পরিচিত ও সুপ্রতিষ্ঠিত মুখ।জেলা শিল্পকলা একাডেমির সদস্য বৈশাখী সংগীত প্রশিক্ষক হিসেবে নিযুক্ত আছেন সৎসঙ্গ কালচারাল একাডেমী চট্টগ্রামে। এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনে রয়েছে তার সরব বিচরণ।পেয়েছেন বহু পুরুস্কার ও সম্মাননা।অর্জন করেছেন শতাধিক সনদপত্র এবং ভূষিত হয়েছেন জাতীয় পুরুস্কারে।

ভারতীয় দূতাবাসের তথ্যানুযায়ী ১০০সদস্যের বাংলাদেশ যুব প্রতিনিধি দলটি ভারতের নয়াদিল্লি সহ ৫টি প্রদেশ সফর করবে।সফরকারীরা ভারতের ইতিহাস,ঐতিহ্য,সংস্কৃতি ও প্রযুক্তির উৎকর্ষ ঘুরে দেখবেন পাশাপাশি বাংলাদেশের সংস্কৃতিকে সেখানকার মানুষের মাঝে তুলে ধরার সুযোগ পাবেন ডেলিগেটসরা।

ডেলিগেটসদের মধ্যে রয়েছেন বিভিন্ন মিডিয়ার তরুণ সাংবাদিক, সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, অভিনয় শিল্পী, মডেল, ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার,লেখক, শিল্পী, খেলোয়াড় ও প্রকাশক।
এই সফর দুই দেশের সেতু বন্ধন আরো জোরদার করবে।

২০১২সালে ভারতের তৎকালীন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির ইচ্ছায় প্রথম এই সফর শুরু হয়।
প্রতিনিধি দলের সদস্যরা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, রাষ্ট্রপতি ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সংগে সৌজন্য বৈঠক করবেন।

এ ভ্রমণ সম্পর্কে জানতে চাইলে বৈশাখী নাথ বলেন হাজারো আবেদনকারীর সাথে বিভিন্ন ধাপে ইন্টারভিউ দিয়ে এই টিমের জন্য নির্বাচিত হয়েছি। সবাইকে নিজ নিজ যোগ্যতা প্রমাণ করে তারপর এখানে আসতে হয়েছে। ভেবে ভালো লাগছে, দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করতে যাচ্ছি, আমি আমার দেশ, দেশের সংস্কৃতি, আমার প্রিয় বিশ্ববিদ্যালয় সব বিষয় তুলে ধরবো। সবাই আমাদের জন্য আশীর্বাদ করবেন।

মতামত